Home / ত্বকের যত্ন / ত্বক ও চুলের যত্নে হলুদের ব্যবহার

ত্বক ও চুলের যত্নে হলুদের ব্যবহার

আজ আপনাদের মাঝে অরেকটি আর্টিকেল নিয়ে হাজির হলাম। আজ আপনাদের জানাবো ত্বক(Skin) ও চুলের(Hair) যত্নে হলুদের ব্যবহার নিয়ে। হলুদের উপকারের কথা বলে শেষ করা যাবে না। রান্নায় প্রাকৃতিক এই উপাদান ছাড়া চলেই না। আবার ত্বক ও চুলের যত্নেও হলুদের ব্যবহার অনন্য। যুগ যুগ ধরেই আয়ুর্বেদিক চিকিৎসাশাস্ত্রে ব্যবহার হয়ে আসছে হলুদ। বর্তমানে রূপচর্চার অন্যতম উপাদান হিসেবেও ব্যবহার করা হয় হলুদ।ত্বক ও চুলের যত্নে হলুদের ব্যবহার

ত্বক ও চুলের যত্নে হলুদের ব্যবহার

১. ত্বক উজ্জ্বল করে
ত্বকের প্রাকৃতিক(Natural) উজ্জ্বলতা পেতে হলুদ অনেক উপকারী। আমরা অনেক আগে থেকেই দেখে আসছি, বিয়ের আগে গায়েহলুদের একটি অনুষ্ঠান করা হয়ে থাকে। আর এটি করা হয়ে থাকে হলুদের উপকারী দিকের কারণেই।

হলুদে থাকা কারকিউমিন নামক শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট প্রদাহবিরোধী হিসেবে কাজ করার পাশাপাশি ত্বককে উজ্জ্বল করে, ত্বকের(Skin) রঙ উন্নত এবং নিস্তেজ চেহারাকে পুনরুজ্জীবিত করতে সহায়তা করে।

২. ডার্ক সার্কেল কমায়
অনেকেরই চোখের নিচে কালো দাগ হয়ে যায়, যাকে আমরা ডার্ক সার্কেল বলে থাকি। হলুদ ডার্ক সার্কেল দূর করতে অনেক কার্যকরী হতে পারে। ক্যালিফোর্নিয়ার লসঅ্যাঞ্জেলেসে কোর্টনি চিউসানো স্কিনকেয়ারের প্রতিষ্ঠাতা কোর্টনি চিউসানো এ বিষয়ে বলেন, হলুদ একটি প্রমাণিত প্রদাহবিরোধী ও লাইটেনিং এজেন্ট। তাই এটি ধরনের উদ্বেগ দূর করে ডার্ক সার্কেল দূর করতে কার্যকরী।

৩. ব্রণের বিরুদ্ধে লড়ে
ব্রণের(Acne) সমস্যার বিরুদ্ধে লড়াই করতে অনেক কার্যকরী হলুদ। এ ছাড়া এটি আপনার স্কিন টোনার হিসেবেও কাজ করতে পারে। আর ব্রণের দাগ কমাতে হলুদ ও মধু(Honey) মিশিয়ে আক্রান্ত স্থানে ২০ মিনিট লাগিয়ে রেখে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে নিলে উপকার পাওয়া যায়।

চিউসানো আরও বলেন, হলুদ ব্যাক্টেরিয়াকে ছড়ানো থেকে বিরত রাখার মাধ্যমে ব্রণের উপকার করে। এটি কেবল একটি প্রাকৃতিক অ্যান্টিসেপটিক ছাড়াও এটি প্রদাহবিরোধী, যা দাগের লালভাব ও ফোলাভাব দূর করে।

৪. বার্ধক্যের ছাপ দূর করে
হলুদে এমন উপাদান রয়েছে, যা চেহারায় বার্ধক্যের ছাপ দূর করে। এ ছাড়া এটি সূর্যের ক্ষতিকারক ঝুঁকি থেকেও রক্ষা করে। এর জন্য নিয়মিত এক চামচ হলুদ ও এক চামচ মধু মিশিয়ে নিয়ে ১০ মিনিট ত্বকে লাগিয়ে রাখুন। এর পর কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে নিলেই পাবেন উপকার।

৫. খুশকি দূর করে
চুলের খুশকি(Dandruff) দূর করতে এবং মাথার ত্বকের বিভিন্ন চুলকানি সমস্যা দূর করতে উপকারী হলুদ। এতে থাকা অ্যান্টিসেপটিক এবং প্রদাহবিরোধী গুণগুলো খুশকি দূর করতে এবং মাথার ত্বকের সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে সহায়তা করে।
এর জন্য আধাচামচ হলুদের গুঁড়ার সঙ্গে ৪ চামচ নারিকেল তেল মিশিয়ে শুকনো চুলে মেখে রেখে দিতে হবে ৩০ মিনিট। পরে শ্যাম্পু করে নিলেই মিলবে উপকার। সপ্তাহে একদিন করতে হবে এটি।

৬. চুলের বৃদ্ধিতে
হলুদ যেমন ত্বকের(Skin) ক্ষত মেরামতে সহায়তা করে, তেমনিভাবে এটি চুলের ক্ষত মেরামত করে চুল বৃদ্ধিতেও সহায়তা করে। প্রাকৃতিক চুলের বিশেষজ্ঞ এবং প্রত্যয়িত ট্রাইকোলজিস্ট টিফানি অ্যান্ডারসন বলেছেন, মাথার ত্বকের সংক্রমণ এবং খুশকি থেকে হওয়া চুল পড়ার(Hair loss) সমস্যা রোধ করার ক্ষমতা রয়েছে হলুদে।
এর জন্য অলিভ অয়েল ও হলুদ মিশিয়ে নিয়ে মাথায় মেখে রেখে দিন ১৫ মিনিট। এর পর শ্যাম্পু(Shampoo) দিয়ে ধুয়ে ফেললেই মিলবে উপকার।

আমাদের লেখা আপনার কেমন লাগছে ও আপনার যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তবে নিচে কমেন্ট করে জানান। আপনার বন্ধুদের কাছে পোস্টটি পৌঁছে দিতে দয়া করে শেয়ার করুন। পুরো পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Recent Comments

No comments to show.